West Bengal Books PDF

(New) West Bengal Board class 12 Book PDF Download | WBCHSE Class XII PDF Download

Hello buddies. Today in this blog post we will share the West Bengal Board class 12 Book PDF Download | WBCHSE Class XII PDF Download link. We hope you will love this.

West Bengal Board class 12 Book PDF Download | WBCHSE Class XII PDF Download

Sahitya Chorcha (সাহিত্যচর্চা ) Class XII (Bengali Text Book for Class 12).

ফিরে আসা
ছোট গল্প


কখনো ভাবি নি এমন কিছুও হতে পারে।মাঝে মাঝে আমরা যা কল্পনা করি বাস্তব তার চেয়ে ভয়ংকর হয়।মৃত্যুর পরেও রিয়া আমাকে ছেড়ে যায় নি।আমি এখনো ওকে দেখতে পাই!! রাগী রাগী চোখে ও আমার দিকে তাকিয়ে থাকে।আর ভয়ংকর ভাবে হাসে।ভয় জিনিসটা কি সেটা এখন আমি বুঝতে পারছি। ও বার বার একটা কথাই বলে — সমীর, এখন আমার কোন ভয় লাগে না।কিন্তু তুৃমি কেন এত ভয় পাও? ওর ভয়ংকর হাসি শুনে আমার আন্তর আত্মাও কেঁপে ওঠে।সবাই মনে করে রিয়ার মৃত্যু শোকে আমি ডিপ্রেশনে চলে গেছি। কিন্তু আমি সবাইকে কিভাবে বুঝাবো ও আমাকে কিভাবে ভয় দেখায়!!ওর ভয়ংকর চোখ দুটো না আমাকে বেঁচে থাকতে দিচ্ছে,না মরতে দিচ্ছে। না জানি কতগুলো রাত আমি ভালো করে ঘুমাইনি। আমি যতই চিৎকার চেঁচামেচি করি কেউ আমার কথায় বিশ্বাস করে না।আমার পরিবার মনে করে রিয়ার মৃত্যুশোক আমাকে পাগল করে দিয়েছে।আমার সাঞ্জু.. আমার সাঞ্জুও আমাকে পাগল মনে করে।কিন্তু আমি কাউকে বুঝাতে পারছি না মৃত্যুর পরেও রিয়া তার প্রতিশোধ নিতে ফিরে এসেছে।যতক্ষন ওর উদ্দেশ্য সফল না হয় ততক্ষন ও আমাকে ছাড়বে না।আমি পাগল না!পাগল না আমি!! আমি রিয়ার আত্নাকে দেখতে পাই সেটা আমি আর সহ্য করতে পারছি না।
(সেজান জাকারিয়া)

LOST IN TRANSLATION
পরপর তিন বারের চেষ্টায় মুভি টা শেষ করতে পারলাম।কাহিনী সুন্দর ঠিক আছে কিন্তু বিশ্বাসযোগ্য মনে হচ্ছে না।
ওরা যা বুঝাতে চাইতেছে বা আমি যা বুঝলাম তা হল কাউকে ভালোবাসা একটা Abstract জিনিষ যা প্রকাশ করে ফেললে সেটা Solid আকার ধারন করে আর সাথে সাথে এর ওজন টা কমে যায়।মেইন বিষয় এইটাই। আমাদের সাহিত্য, সংস্কৃতিতে,সমাজে তো ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ Solid আকারে না ঘটালে তো চলেই না।🤓🤓 একজন বিজ্ঞের সাথে কথা বললাম এ নিয়ে। উনি ও বিজ্ঞের মত বললেন ‘ বাংলা সাহিত্যের বড় বড় কবি রা সমাজকে আলোড়িত করতে তারাও উহ্য ভাবে ভালোবাসার উপন্যাস,কবিতা লিখে গেছেন।‘ তার কথায় কনভিন্সড হতে পারলাম না।কারন বাংলা সাহিত্যের দুই পিলার রবি ঠাকুর আর কাজী নজরুল ইসলাম তাদের অসংখ্য লেখায় প্রকাশ্যভাবে ভালোবাসার কথা বলে গেছেন।অবশ্য একজন উর্দু কবির কথা শুনেছি যিনি বলেছিলেন ‘পেয়ার ক্যারনা তো আদমী কো ক্যায়সে মালুম হোনা?’ মানে ভালোবাসাবাসি হবে কিনতু মানুষ জানবে কেন? উল্টো ভাবে হিন্দী একটা গানে আবার বলছে ‘পেয়ার কিয়া তো ডারনা কিয়া ? ’। চানক্যের কথা না হয় বাদ ই দিলাম কারন সে তো ভালোবাসাকে বিষের সাথে তুলনা করে গেছেন।
যাক ….. কি জানি বাঙ্গালী মন নিয়ে বিদেশী মুভির মরালিটি হয়ত বোঝা যাবে না……….🤔🤔
( বিঃদ্রঃ আমি এখানে বিশাল ইংরেজী বা পারস্য সাহিত্যের কথা আনি নাই শুধুমাত্র মুভিটির সাথে আমাদের বাংলা সাহিত্য, সংস্কৃতির সাদৃশ্য/অসাদৃশ্য তুলে ধরার জন্য আর সংযোজিত ছবিটা নেট থেকে নিলাম )

তথ্য কথা
ইতিহাসের বর্বর জনগোষ্ঠী ঠগীদের নিয়ে কিছু তথ্যচিত্র
মো ইব্রাহীম খলিল
১) ১৩৫৬ সালে জিয়াউদ্দীন বারানীর বই থেকে জানা যায় যে ১২৯০ সালের দিকে কিছু ঠগ দিল্লীর সুলতানের সামনে নিয়ে আসা হয়। সুলতান তাদের কোন ধরণের সাজা দেন নি। রাজ্য থেকে বের করে দিয়েছিলেন যাতে এই ঠগেরা দিল্লীতে কোন ধরণের অনাচার না তৈরি করতে পারে।
২) ঠগীরা সাধারণত বংশ পরম্পরায় এই খুনের কান্ডটি ঘটাত। তাদের সন্তানের বয়স ১৮ হলে তারা হত্যার হুকুম কিংবা দলের সাথে পরিভ্রমণ করবার সুযোগ পেত।
৩) কেবলমাত্র ধনীই নয়, অসহায় সম্বলহীন মানুষের সাথেও লুটপাট ও অনাচার করত ঠগীরা।
৪) ঠগীরা মা কালীর ভক্ত। তাদের হত্যার সময় তারা “জয় মা ভবানী” বলে হতভাগ্য শিকারের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ত।
৫) ঠগীদের অস্ত্র একটি ৩০ইঞ্চি লম্বা হলুদ রুমাল এবং একটি আধূলি। এই আধূলিকে এক প্রান্তে বেঁধে নিয়ে তারা রুমালের ফাঁস তৈরি করে হত্যা করত শিকারদের।
৬) একটি শিকারকাজ সফলভাবে সম্পন্ন হলে তারা পূজা করত। মা ভবানীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করত ও গুড়জাতীয় মিষ্টি দ্রব্য ভক্ষণ করত।
৭) একজন শিকারকে তিনজন ঠগী চেপে ধরে হত্যা করত। এদের মাঝে একজন মাথা চেপে ধরে থাকত, একজন পা চেপে ধরে রাখত এবং একজন গলায় ফাঁস চড়াত।
খুনের পদ্ধতি
৮) ঠগী বেহরামকে ধরা হয়ে থাকে ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়ংকর ঠগী। নিজ হাতে এই ঠগ খুন করেছেন ১২৫ জনকে। ৯৩১ জনের হত্যার সময় তিনি নিজে উপস্থিত ছিলেন।
৯) শেষের দিকে ঠগীরা ব্রিটিশদের হত্যা করা বন্ধ করে দেয়। এরফলেই শ্লীম্যান তার চর নিযুক্ত করতে সুবিধা পান এবং ঠগীদের একটি বিশাল দল তার কাছে ধরা পড়ে।
১০) ঠগীরা মাঝে মাঝে ক্লান্ত হয়ে পড়লে শিকারের উদ্দেশ্যে বেশিদূর যেত না। মাত্র দু তিনজন শিকারকে হত্যার জন্য বেড়িয়ে পড়ত এবং বাকিরা উচ্চস্বরে গান বাজনা করত যাতে হতভাগ্য মানুষটির চিৎকার তাদের কারো কানে না পৌঁছয়।
১১) ঠগীদের দলে অনেক মুসলমানও ছিলেন। ইসলাম ধর্মে মূর্তিপূজা নিষিদ্ধ হলেও তারা সকলের সাথে একই কাতারে কালী পূজা করতেন। এছাড়া ধনী গরীব উঁচু নিচু সহ সমাজের নানা স্তরের লোক ঠগীদের দলে ছিল।
১২) অনেক সময় বিশাল লোকবহরের সাথে ঢুকে যেত ঠগীরা। হাসি ঠাট্টা আর ভালো ব্যবহার করে মন জয় করে নিত সকলের। সুযোগ বুঝে ঝাঁপিয়ে পড়ত সকলের ওপর। এজন্য কখনো কখনো লম্বা সময় ধরে অপেক্ষা করে থাকতে হত তাদের। আস্থাভাজন না হওয়া পর্যন্ত আক্রমণ করত না ঠগীরা। ১৩) ঠগীরা কাউকে খুন করবার আগে বেশ কিছু সাইন বা চিহ্ন দেখে নিত। মা কালীর সমর্থন আছে বুঝলেই তারা খুন করতে নেমে যেত। আকাশ, পাখি, কালো কাক ইত্যাদি নানা জিনিস বিচার করত তারা খুন করবার আগে।
ঠগীদের গানের আসর
১৪) ঠগীদের মাঝে একটি মিথ চালু ছিল। তারা মনে করত মা কালী একবার রক্তবীজ নামক এক অসুরের সাথে লড়াই করেছিলেন। এই রক্তবীজের কাজ ছিল মানুষকে ধরে ধরে খেয়ে ফেলা। কালী ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলেন। যতই তিনি চেষ্টা করছিলেন না কেন, এই অসুরের রক্ত থেকে আরো অসুর তৈরি হচ্ছিল। তখন মা কালী তার শরীরের ঘাম থেকে দুজন মানুষ তৈরি করেন ও তাদেরকে অস্ত্র হিসেবে দেন হলুদ রুমাল। এই দুজন রুমাল দিয়ে হত্যা করেছিল রক্তবীজকে। এইজন্য ঠগী সম্প্রদায়ের কাছে রুমাল এত বিশেষত্ব বহন করত।
হেনরী শ্লীম্যান তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ঠগীদের নির্মূল করতে সক্ষম হন। তবে কথা আছে প্রচুর। কেউ কেউ বলেন শ্লীম্যানের পরও ঠগীরা সম্পূর্ণভাবে দমিত হয় নি। তাদের কাজ তারা গোপনে ঠিকই চালিয়ে গিয়েছিল। আজও রাজস্থানে বাস করে ঠগীদের বংশধরেরা। তবে তারা রয়েছে আর দশজন সাধারণের মতই।
ইতিহাসের পাতায় ঠগীরা যেমন কালো একটি অধ্যায়, ঠিক তেমনি চিত্তাকর্ষকও। খুব দ্রুতই বলিউডে আসছে “থাগস অব হিন্দুস্তান” নামক একটি ছবি, যেখানে অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চন, আমির খান প্রমূখ।

See also  (New) West Bengal Board class 4 Book PDF Download | WBBSE Class four PDF Download

So today we have shared the West Bengal Board class 12 Book PDF Download | WBCHSE Class XII PDF Download link. We hope you have enjoyed this.

ADR Dider

This is the best site for all types of PDF downloads. We will share Bangla pdf books, Tamil pdf books, Gujarati pdf books, Hindi pdf books, Urdu pdf books, and also English pdf downloads.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
You cannot copy content of this page