Best Bangla PDF Books

(All) মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন Pdf download | Mohammad Nazim Uddin Books PDF free download

আজকে আমরা আপনাদের অনুরোধের বই মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন Pdf download | Mohammad Nazim Uddin Books PDF free download লিংক নিয়ে এসেছি।

মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন Pdf download | Mohammad Nazim Uddin Books PDF free download

রেড ড্রাগন – টমাস হ্যারি, মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন Red Dragon by Thomas Harris

Download link 1orDownload link 2orDownload link 3or

জাল – নাজিম উদ্দিন Jaal – Mohammod Nazim Uddin

Download link 1orDownload link 2orDownload link 3

রবীন্দ্রনাথ এখানে খেতে আসেন নি – মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন Rabindranath Ekhane Kokhono Khete Asen Ni by Muhammad Nazim Uddin

Download link 1orDownload link 2orDownload link 3orDownload link 4

রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও আসেননি – মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন Rabindronath Ekhane Kokhono Asenni – Mohammad Nazim Uddin

Download link 1orDownload link 2orDownload link 3

বর্ন আলটিমেটাম – রবার্ট লুডলাম / মোহাম্মাদ নাজিম উদ্দিন ​The Bourne Ultimatum – Robert Ludlum / Mohammad Nazim Uddin

Download link 1orDownload link 2

নো ইজি ডে – মার্ক ওয়েন ও কেভিন মোরার / মোহাম্মাদ নাজিম উদ্দিন ও রবিন জামানখান​ No Easy Day | Kevin Maurer & Mark Owen/Mohammad Nazim Uddin & Robin Zaman Khan

Download link 1

ফায়ারফক্স – ক্রেইগ টমাস – মোহাম্মাদ নাজিম উদ্দিন Firefox | Craig Thomas / Mohammad Nazim Uddin

Download link 1orDownload link 2orDownload link 3orDownload link 4

ফায়ারফক্স – ক্রেইগ টমাস – মোহাম্মাদ নাজিম উদ্দিন Firefox | Craig Thomas / Mohammad Nazim Uddin

Download link 1orDownload link 2orDownload link 3orDownload link 4

বইয়ের নাম : মধ্যবিত্ত প্রেম
লেখক : আলিফ আহমেদ
ধরণ : উপন্যাস ( রোমান্টিক)
পৃষ্টা সংখ্যা : ১১১
মুদ্রিত মূল্য : ২৪০
প্রকাশনা : পান্ডুলিপি
বাংলা ছবির আপডেট ভার্সন পড়তে চাইলে সাম্প্রতিক তৃতীয় মুদ্রণ হওয়া এই বইটি আপনার জন্য। কারণ, বস্তাপঁচা গদ্য আর সস্তা আবেগের অপরিমিত মিশ্রণে যা তৈরি হয়েছে তার নাম ‘মধ্যবিত্ত প্রেম’। যদি আপনি ভেবে থাকেন বইটি পড়ে মধ্যবিত্ত জীবনের সুখ-দুঃখ, হাসি-কান্না, অপূরণীয় চাহিদা, স্বপ্নের পরাজয়, মরীচিকাময় সুখ, বৃত্তের ভেতর আটকে থাকা জীবন ইত্যাদি সম্পর্কে উপলব্ধি করতে পারবেন তাহলে আপনার জন্য এক আকাশ সমবেদনা। কারণ আমিও বই পড়ার আগে এসব ভেবেছিলাম। পরে এসবের ছিটেফোঁটাও পাইনি।
প্রধান চরিত্র : বসন্ত ও কুসুম। বসন্ত একজন লেখক ও প্রকাশক। কুসুম একজন সাধারণ পাঠিকা।
কাহিনী সংক্ষেপ : বসন্ত একটা নিম্নবিত্ত পরিবারের ছেলে। পরিবারের হাল ধরতে ঢাকায় যান। চাকরি করেন। একটা সময় চাকরি ছেড়ে টিউশনি করেন। কারণ চাকরির টাকায় জীবন চলে না। তারপর এক সময় টিউশনি ছেড়ে দিয়ে প্রকাশনার কাজ শুরু করেন। পাশাপাশি বসন্ত সাহেব খুব ভালো কবিতাও লেখেন। আর সে কবিতা ফেসবুকে পোস্ট করেন। কুসুম নামের এক মেয়ে বসন্ত সাহেবের লেখা পড়ে তার অন্ধ পাঠিকা হয়ে যায়। শুরু হয় লেখক পাঠিকার লুতুপুতু চ্যাটিং। লেখক তার পাঠিকাকে ইম্প্রেস করতে আরো সুন্দর সুন্দর কবিতা পোস্ট করেন। পাঠিকা সেসব কবিতা পড়ে আনন্দে কাঁদে। তারপর তারা ম্যাসেঞ্জারে প্রেম করে। এভাবে মাত্র ১৩ দিনের মাথায় তারা যশোর থেকে পালিয়ে ঢাকা গিয়ে বিয়ে করে। এই হলো বইয়ের মোটামুটি কাহিনী। আরো বিস্তারিত জানতে বইটি আপনাকে পড়তে হবে।
পাঠ প্রতিক্রিয়া : একজন সাধারণ পাঠক হয়ে স্বীকার করতে বাধ্য হচ্ছি উপন্যাসটি আমাকে একটুও তৃপ্তি দেয়নি। কারণ, উপন্যাসের শব্দচয়ন খুব বাজে ছিল। আর সস্তা প্রেমের গল্প পড়তে পড়তে আমার মতো যেকোনো পাঠক-ই বিরক্ত হয়ে যাবে।
উপন্যাসের ভালো দিক :
১.উপন্যাসে কয়েকটা চুম্বক লাইন আছে যেগুলো ভালো ছিল। যদিও লেখক সাহেব উনার বইয়ের রিভিউ দিয়ে বলেছিলেন প্রতিটি পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠায়, পর্বে পর্বে চুম্বকীয় লাইন আছে বাট আমি এরকম কিছু পাইনি।
২. উপন্যাসে সাতটি কবিতা ছিল যার কিছু কিছু লাইন অনেক ভালো ছিল।
খারাপ দিক : উপন্যাসের খারাপ দিকের অভাব নেই। তারমধ্যে প্রধান প্রধান কিছু দিকগুলো তুলে ধরি।
১. বসন্ত সাহেব একজন লেখক হয়ে কেন সে তার প্রেমিকাকে নিয়ে পালিয়ে বিয়ে করলো! সে তো পরিবারকে বলতে পারতো। যেহেতু সে বেকার ছিল না। আর একজন লেখক সমাজের কাছে অনেক সম্মানিত মানুষ। তারউপর বসন্ত সাহেবের পরিবার নিম্নবিত্ত। এত্তকিছুর পরেও উনি সবকিছু ছেড়ে কেন পালিয়ে বিয়ে করলেন । লেখক এটা দ্বারা কি বুঝালেন বুঝলাম না।
২. যেহেতু এটা রোমান্টিক উপন্যাস। এখানে প্রেম থাকবে স্বাভাবিক। তো এখানে আবার লেখক প্রেমকে হারাম উল্লেখ করেও কেন ১৩ দিন প্রেম করলেন। বুঝলাম না।
৩. লেখক বলেছিলেন উনার বইয়ে ১০০ এর বেশি উক্তি আছে। তবে এই ১০০ এর মধ্যে গাঁজাখুরি উক্তির অভাব নেই। যেমন ‘ মেয়েরা প্রশংসা ও উপহারের বিনিময়ে দাগহীন সাদা কাগজে সাক্ষর দিতে প্রস্তুত।’ এটা দিয়ে মেয়েদের কতটা নিচু করা হয়েছে জানি না।
আরেক জায়গায় বলেছেন ‘ জেনারেল পড়ুয়া ছেলেরা মাদরাসায় পড়ুয়া মেয়েদের প্রতি দুর্বল ‘ এটা কতটা সত্য আমি জানি না।
‘পরিবার ও আত্মবিশ্বাসী ছেলেরা ভালোবাসার আগে বিয়ের কথা বলে’ ( অথচ লেখক নিজেই আগে প্রেম করেছেন, ভালোবাসার কথা বলেছেন, তারপর বিয়ে করেছেন)
৪. স্বপ্নদোষ, পরকীয়া ইত্যাদি ১৮+ লেখা আছে। বইটি ১৮ এর নিচে কারো পড়া উচিৎ না।
আরো বেশি বললে কেউ কেউ বলবে লেখক সাহেব আমার শত্রু। তাই পরিকল্পিত ভাবে উনাকে হেয় করছি। বিশ্বাস করেন, লেখক কে আমি চিনি না। উনিও আমাকে চিনেন না।
যেহেতু এটা লেখক সাহেবের নতুন বই। তাই উনার প্রতি শুভকামনা রইলো। আর উনার উচিৎ ছিল আরেকটু সময় নিয়ে বইটি প্রকাশ করা। তাহলে আমার মতো অনেক পাঠকের টাকাটা বিফলে যেতো না। যদিও বইটি আমি ধার নিয়ে পড়েছি।
যাইহোক, কারো ফেসবুকের সস্তা গল্প বইয়ের ভেতর পড়তে চাইলে বইটি অর্ডার করতে পারেন৷ বর্তমানে বইটির তৃতীয় মুদ্রণ চলছে।

দূরবীন
শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়
৫১২ পৃষ্ঠার বেশ বড় উপন্যাস
মোটামুটি ৩ পুরুষ( হেমকান্ত, কৃষ্ণকান্ত,ধ্রুব) এর কাহিনি রচয়িত হয়েছে।
এই ৩ পুরুষের সাথে কেন্দ্রীয় চরিত্রে রয়েছে
রজ্ঞময়ী, রেমি,শচিন, বিশাখা। এছাড়াও জগা,কুট্টিদা,ধারা,লাট্টু,নোটন,জীমূতকান্তি ইত্যাদি চরিত্র।
জমিদার পরিবার, অনেক লোক- লস্কর। হেমকান্তের প্রতি পুরুতের বালিকা মেয়ে রজ্ঞময়ীর প্রেম। যে প্রেমর কোন কামনা-বাসনা নেই, চাওয়া -পাওয়া নেই।জাত,বয়স আর পরিবারের প্রায় সবার বাধা উপেক্ষা করে প্রেমিকা পায় তার প্রিয়কে, যাকে সেই ছোট কাল থেকে সে দেবতা বলেই সেবা-যত্ন করে আসছে। যাকে না দেখলে প্রেমহীন বয়স্ক হেমকান্তির অসস্তি লাগে, যার উপর নির্ভর করে প্রেমিক পুরুষ তার বাকি জীবন কাটিয়ে দেয়।
কৃষ্ণকান্তের ছেলে ধ্রুব’র বউ রেমি। যে স্বামীকে অন্ধভাবে ভালোবাসে। স্বামীর বাড়ির জন্য সব সম্পর্ক একমত ছিন্নই করে। কিন্তু বাস্তবে উল্টো ঘটনা।তার স্বামী ধ্রুব তাকে তেমন পাত্তা দেয় না।
ধ্রবকে ভালোবাসে আরেকটি মেয়ে তার নাম নোটন।নোটন বড় হয়েছে ধ্রুব তার স্বামী এই কামনা করে।সে শীব পূজোয় শীবের মাথায় দুধ ডালে ধ্রুবকে কল্পনা করে।বাস্ততে সে ধ্রুবকে পায়না।একটা সময় জীবিকার তাগিদে অনেক নীচ কাজ করে বেড়িয়েছি। শেষ পর্যন্ত ধ্রুবকে সে ভালোবেশেছে । এখানে ভালোবাসা প্রায় অপূর্ণ।
সবচেয়ে বেশি আলোচিত ব্যক্তি কৃষ্ণকান্ত।
পিতৃপ্রেম , সুঠম দেহ, জ্ঞানের তীক্ষ্ণতা, দেশপ্রেম,ইংরেজদের বিরোধিতা, সমাজ, চরম আত্তীয় কেদ্রিক,ক্ষমতা, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সকল গুনাবলির উপস্থিতি পাওয়া এই চরিত্রে।
এত কিছু পর একাধিকবার মন্ত্রী হয়েও পিতা তার ছেলেদের থেকে নিগৃহীত। মেজো ছেলে ধ্রুবর প্রতি ছিল তার আসীম ভালোবাসা। আড়ালে থাকেও ছেলের সকল কর্মকান্ডের প্রতি বাবার নজর ছিল সবচেয়ে বেশি। ধ্রুব তার মায়ের মৃত্যুর জন্য সবসময় বাবাকেই দায়ী করেছেন মনে প্রানে, যার ধরুন সে বাবার প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে পারেনি কখনো।
শেষ দৃশ্যঃ
আমাদের জীবনে পারিবারিক বন্ধন যে কতটা প্রয়োজন তা কৃষ্ণকান্তের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে প্রকাশ পেয়েছে। জীবনের শেষ মুহুর্তে ছেলের কাছে বাবা ডাক শুনার আকুতি, ছেলের পক্ষ থেকে শত অবজ্ঞার পরও জীবনের শেষ সম্বল ছেলের হাতে তুলে দিয়ে পৃথিবীর সকল পিতার কর্তব্য রচয়িত হয়েছে।
বাবা থেকে ছেলে শুধুমাত্র যে শুক্র-ক্রিটের অবলম্বন-ই নয়।এ যে জাগতিক ধারা যেখানে, মায়া-মমতা- ভালোবাসা,নির্ভরতার শত বার্ধনে আবদ্ধ।

See also  [PDF] হ্যাকার ১,২ মাসুদ রানা pdf download | Hacker Masud Rana PDF Download

আজকে আমরা আপনাদের অনুরোধ এর বই মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন Pdf download | Mohammad Nazim Uddin Books PDF free download লিংক দিয়েছি।

ADR Dider

This is the best site for all types of PDF downloads. We will share Bangla pdf books, Tamil pdf books, Gujarati pdf books, Hindi pdf books, Urdu pdf books, and also English pdf downloads.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
You cannot copy content of this page