Bangla islamic Books PDF

(All) তাফসীরে মা’রেফুল কুরআন pdf download | Tafsir Maariful Quran Bangla pdf free download

আজকে আমরা আপনাদের অনুরোধের বই তাফসীরে মা’রেফুল কুরআন pdf download | Tafsir Maariful Quran Bangla pdf free download লিংক দিবো।

তাফসীরে মা’রেফুল কুরআন pdf download | Tafsir Maariful Quran Bangla pdf free download

Tafsir Maariful Quran Part-1

Tafsir Maariful Quran Part-2

Tafsir Maariful Quran Part-3

Tafsir Maariful Quran Part-4

Tafsir Maariful Quran Part-5

Tafsir Maariful Quran Part-6

Tafsir Maariful Quran Part-7

Tafsir Maariful Quran Part-8

বই: দি ওল্ড ম্যান এন্ড দ্য সি
লেখক: আর্নস্ট হেমিংওয়ে
রূপান্তর: রওশন জামিল
প্রকাশক: সেবা প্রকাশনী

পাঠপ্রতিক্রিয়া:

বইটা শেষ করার পর একটা চিন্তাই মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছিলো। ইশ! আরও আগে কেন পড়িনি এই মাস্টার পিস বইটা। এ ধরনের বই গুলো সকলেরই পড়া উচিত।
সেবার অনুবাদ নিয়ে কিছু বলার নেই৷ সব সময়েই মানসম্মত অনুবাদ নিয়ে আসে।
বইটা পড়ুন। আপনি যদি হতাশার সাগরে ভাসমান একজন বিপর্যস্ত মানুষ হয়ে থাকেন তবে বইটি আপনাকে আরেকবার নতুন করে ভাবতে শেখাবে। লড়াই করে টিকে থাকার মনোবল জোগাতে সাহায্য করবে৷ 😊

কাহিনী সংক্ষেপ:

১৯৫২ সালে সাহিত্যে পুলিৎজার পুরষ্কার এবং ১৯৫৪ সালে নোবেল পুরষ্কারপ্রাপ্ত উপন্যাস ‘দি ওল্ড ম্যান এন্ড দ্য সী’ লেখক আর্নস্ট মিলার হেমিংওয়ে-র এক অনবদ্য সৃষ্টি যেখানে সান্তিয়াগো নামের এক বুড়ো জেলের কথা উঠে এসেছে।
বইটিতে লেখক মানবজীবনের নিরন্তর লড়াইয়ের কথা ফুটিয়ে তুলেছেন।
বৃদ্ধ জেলে সান্তিয়াগো টানা ৮৪ দিন ব্যর্থ হয়। একটিও মাছ না পেয়ে শূন্য হাতে ফিরে এলেও ৮৫ তম দিনে নতুন আশা নিয়ে শিকারে যায়। এখানে প্রচন্ড আত্নবিশ্বাস এবং হার না মানা মানসিকতার প্রকাশ পায়৷
মানব জীবনে যত প্রতিকূলতাই আসুক না কেন, হার না মেনে শেষ অবধি লড়াই চালিয়ে টিকে থাকার চেষ্টাই জীবনের প্রকৃত অর্থ।
৮৫ তম দিনে বুড়ো একটি বিশালাকৃতির মার্লিন মাছকে বড়শিতে আটকাতে সক্ষম হয়। শুরু হয় এক অসম-সাহসিক সংগ্রাম।
তিন দিন অক্লান্ত পরিশ্রম, কঠোর অধ্যবসায়ের সাথে সংগ্রাম করে সে মাছটিকে ধরে৷ লেগে থাকলে সাফল্য ধরা দেবেই তা এই বিশাল সমুদ্রের বুকে বুড়ো জেলে আর মাছের লড়াইয়ের গল্প থেকে উপলব্ধি করা যায়৷
দুর্ভাগ্যের দিনের সমাপ্তি টানার স্বপ্নে বিভোর সান্তিয়াগো প্রবল আশায় মাছটিকে নিয়ে ফিরতে শুরু করে বন্দরের দিকে। এখানে মানুষের প্রতিনিধি হিসাবে জয়ী বৃদ্ধ জেলে।
কিন্তু প্রকৃতির প্রতিনিধিত্ব করছে যে বিশাল সমুদ্র!
সে কী জয়ী হতে দেবে সান্তিয়াগোকে?
শেষ পর্যন্ত কী সান্তিয়াগো মাছটিকে নিয়ে বন্দরে ফিরতে পারবে?
জানতে চাইলে পড়ে ফেলুন আর্নস্ট হেমিংওয়ে-র ‘দি ওল্ড ম্যান এন্ড দ্য সী’।
প্রিয় উক্তিঃ-
“হেরে যাবার জন্য জন্ম হয়নি মানুষের। “
“মানুষ ধ্বংস হয়ে যেতে পারে কিন্তু পরাজিত কখনও হয় না ।”
© রাজু আহমেদ।

See also  (New) তাফসীর বায়যাবী PDF Download

বই : দ্য মিস্ট
লেখক : স্টিফেন কিং
অনুবাদ : মোহতাসিম হাদী রাফী
প্রকাশক : বাতিঘর প্রকাশনী
প্রকাশকাল : ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
ঘরানা : ক্রিয়েচার থ্রিলার/হরর
প্রচ্ছদ : ডিলান
পৃষ্ঠা : ১৪৩
মুদ্রিত মূল্য : ১৮০ টাকা
ভ্যাপসা গরমে ভরা একটা অলস দুপুর। বিকেলটাও কেমন যেন থম মেরে থাকা। ঠিক এর পরে সন্ধ্যাতেই ধেয়ে এলো ভয়াবহ এক ঝড়। পুরো প্রকৃতি লণ্ডভণ্ড করে দেয়া এই ঝড়ে অনেক ক্ষয়ক্ষতি হলো। বড় বড় গাছ ভেঙে পড়ে রাস্তাঘাট বন্ধ করে দিলো। এই পর্যন্ত সবকিছু বলা চলে প্রাকৃতিকই ছিলো। কিন্তু এর পরে যা ঘটলো সেটাকে অতিপ্রাকৃত বা অস্বাভাবিক – যে কোনটাই বলা যায়।
লং লেকের ধারে বসবাসকারী ডেভিড ড্রাইটন, তার স্ত্রী স্টেফেনি ড্রাইটন ও তাদের পাঁচ বছর বয়সী ছেলে বিলি ঝড় শেষে এক অদ্ভুত কুয়াশার দেখা পেলো। এই প্রচণ্ড গরমের সময়েও যেন এই কুয়াশা লং লেকের পানির ওপর দিয়ে ধীরে ধীরে এগিয়ে আসছে। ওদিকে শহর থেকে কিছুটা দূরেই আমেরিকান মিলিটারি অ্যারোহেড প্রজেক্ট নামে রহস্যময় এক প্রজেক্ট নিয়ে ব্যস্ত। তবে কি হঠাৎ উদ্ভূত এই কুয়াশার সাথে অ্যারোহেড প্রজেক্টের কোন সম্পর্ক আছে!
সুপারমার্কেটে শপিং করতে গিয়ে একদল মানুষ আটকা পড়ে গেলো সেটার ভেতরে। পুরো বিল্ডিং সহ আশেপাশের এলাকা ঘিরে ফেলেছে ঘন কুয়াশা। যারাই সেই কুয়াশার ভেতরে পা বাড়ানোর সাহস দেখাতে যাচ্ছে, তারা আর ফিরে আসছেনা। বরং শোনা যাচ্ছে তাদের কাতরানি, হাহাকার। শুধু তাই না, দানবীয় আকৃতির নানা জীব আক্রমণ করার সুযোগ খুঁজে চলেছে নানাভাবে। তাদের হিংস্রতার অবাক সাক্ষী হয়ে নিজেদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য নানা উপায়ের সন্ধান করতে থাকলো সুপারমার্কেটে আটকে পড়া অসহায় আর ভীত মানুষগুলো।
এদিকে গোদের ওপর বিষফোঁড়ার মতো ডাইনি স্বভাবের এক বৃদ্ধার অত্যাচার অসহ্য হয়ে উঠলো। কুয়াশা আর তার ভেতরের অজানা প্রাণীদের তাড়ানোর জন্য নরবলি দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে সে। রহস্যময় কুয়াশা, বিচিত্র আর হিংস্র কিছু প্রাণী, রক্তপিপাসু বৃদ্ধা আর সেই সাথে আরো কিছু বিপদ-আপদকে পিছু ফেলে কিছু মানুষ হয়ে উঠলো দারুন সাহসী। আর সেই সব সাহসী মানুষদের বাঁধভাঙ্গা সাহসের গল্পই যেন মূর্ত হয়ে উঠলো শেষ পর্যন্ত।
পাঠ প্রতিক্রিয়া : বিপুল জনপ্রিয় আমেরিকান হরর কাহিনি লেখক স্টিফেন কিংকে চেনেননা এমন হরর কাহিনিপ্রেমী বোধহয় কোথাও পাওয়া যাবেনা। দ্য শাইনিং, ক্যারি, ইট, ডক্টর স্লিপ সহ অসংখ্য পাঠকপ্রিয় হরর উপন্যাস তাঁর কলম থেকে উঠে এসেছে। সেই সাথে লিখেছেন রিটা হেওয়ার্থ অ্যান্ড শশাঙ্ক রিডেম্পশনের মতো টানটান উত্তেজনাকর নভেলাও। যা নিয়ে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্র। আইএমডিবি চার্টে যে চলচ্চিত্রের অবস্থান একেবারে নাম্বার ওয়ানে। ‘দ্য মিস্ট’ স্টিফেন কিংয়ের জনপ্রিয় কাজগুলোর মধ্যে অন্যতম।
বইটা পড়তে শুরু করার পর থেকে একটা বারের জন্যও মনে হয়নি আহামরি ধরণের কিছু পড়ছি। শুধু সময়টা কেটে যাচ্ছে ভালোভাবে, তাই পড়া – এমনটা ভেবেই পড়া চালিয়ে যাচ্ছিলাম। কিন্তু যতোই এই নভেলাটার গভীরে যাচ্ছিলাম, ততোই যেন চাপা একটা টেনশন কাজ করছিলো মাথার ভেতরে। ‘কি হয় কি হয়’ টাইপ একটা অনিশ্চয়তা যেন আমাকে ঘিরে ধরছিলো চারপাশ থেকে। এভাবেই একটা সময় খেয়াল করলাম, মাত্র ১৪৩ পৃষ্ঠার এই ক্ষুদ্রকায় কাহিনিটার একেবারে শেষ পর্যায়ে চলে এসেছি আমি। তবে শেষটা যখন পড়লাম, অনিশ্চয়তার অনুভূতি থেকে কিছুমাত্র মুক্তি পাওয়া হলোনা। স্টিফেন কিং এক্ষেত্রে ‘শেষ হইয়াও যে হইলোনা শেষ’ নীতি অবলম্বন করে গেলেন। কাহিনিটা শেষ হয়নি বলে মনে হয়েছে। আর এটাতে আমি সামান্য অতৃপ্ত। তবে একটা কথা সত্যি। টাইম কিলার হিসেবে ‘দ্য মিস্ট’ সত্যিই দারুন ছিলো।
তরুণ অনুবাদক মোহতাসিম হাদী রাফীর পূর্ববর্তী কাজগুলোর মতো ‘দ্য মিস্ট’ নভেলার অনুবাদটাও সহজ সাবলীল ছিলো। যথেষ্ট সুখপাঠ্য মনে হয়েছে আমার কাছে। ছোটখাটো কিছু বানান জটিলতা থাকলেও সেটার হার আশঙ্কাজনক মনে হয়নি। ‘দ্য মিস্ট’ নিয়ে একই নামে একটা হলিউড মুভিও আছে। সেটা দেখে ফেলবো। ডিলান সাহেবের নীলে নীলময় প্রচ্ছদটা ভালো লেগেছে।
ব্যক্তিগত রেটিং : ৩.৮/৫
© শুভাগত দীপ

বই: #দ্যমায়ানকন্সপিরেসি
মূল: গ্রাহাম ব্রাউন
অনুবাদ: অসীম পিয়াস
প্রকাশনী: রোদেলা
মুদ্রিত মূল্য: ৪৫০ টাকা
পাঠ সংক্ষেপ:
আমেরিকান সংগঠন ‘ন্যাশনাল রিসার্চ ইনস্টিটিউট’ (NRI) এর ভেতরের কাজ হলো বিভিন্ন দেশের প্রজেক্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য তার উপযোগিতা নির্ণয় করা। তারপর সম্পর্কোন্নয়ন, ঘুষ বা চুরি করে হলেও তা হাসিল করা।
১৯২৬ খ্রিস্টাব্দে মার্টিন নামের এক আমেরিকান অভিযাত্রী আমাজনের গভীর থেকে কিছু হাতিয়ার উদ্ধার করেন। দীর্ঘদিন সেগুলো প্রায় পড়েই ছিল। কিন্তু সম্প্রতি NRI আধুনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে পরীক্ষা করার পরই এগুলো আগ্রহের বস্তুতে পরিণত হয়।
সেই পরীক্ষার যের ধরেই NRI প্রধান গিবস আমাজনে একটি অভিযান পরিচালনা করতে চান। উদ্দেশ্য গোপন কিছু উদ্ধার করা। অভিযানটা এতোই গোপনীয় যে খোদ মার্কিন সরকার এবং ব্রাজিল সরকার এই বিষয়ে অবগত নয়।
NRI এর হয়ে অনেকগুলো অভিযান পরিচালনা করা আর্নল্ড মুরকে প্রধান এবং ড্যানিয়েলি লেইডলকে সহকারী প্রধান রেখে অভিযান পরিচালনা করার দায়িত্ব দেয়া হয়। তাদের প্রাথমিক কাজ হচ্ছে অভিযানের জন্য প্রয়োজনীয় লোকবল যোগাড়ের ব্যবস্থা করা। কীভাবে কী করতে হবে তার কোনো কিছুই গিবস বলে দেবেন না। পাবে না প্রয়োজনের সময় কোন সাহায্যও!
পৃথিবী থেকে হারিয়ে যাওয়া মায়া শহর তুলান জুয়ুয়া খোঁজার গোপন অভিযানে ড্যানিয়েলির একজন দক্ষ পাইলট দরকার। হকার হলো সেই পাইলট। হকার একজন প্রাক্তন CIA কর্মী। তার সহকর্মীরা চায় তাকে খুন করতে, Interpol চায় ওকে গ্রেফতার করতে কিন্তু হকার তার কোনোটাই হতে দিতে চায় না।
আমাজনের গহীনে মানব জাতির সবচেয়ে মারাত্মক গোপন রহস্য উদ্ধারের জন্য শুরু হলো অভিযান…
কিন্তু আমাজনের গহীন অরণ্যে অভিযাত্রী দল মুখোমুখি হলো এক অচেনা শত্রুর। বন্ধুদের লাশের পাশে বসে ওরা আবিষ্কার করলো নতুন এক চমক। তুলান জিয়ুয়া আর তার গোপন রহস্যের খোঁজে শুধু ওরা একাই আসেনি। আরেকটি দল এসেছে, যারা এই গোপন রহস্যের কথা জানে।
হঠাৎ আগ্রাসী হয়ে ফিরে এলো পৌরাণিক দানব। এদিকে যুদ্ধ করতে করতে ওদের গোলা বারুদও শেষ! তারপর…?
পাঠ প্রতিক্রিয়া:
শৈশবের অ্যাডভেঞ্চার পড়া রবার্ট লুই স্টিফেন্সন দিয়ে শুরু হলেও আমি উনার লেখায় পূর্ণ তৃপ্তি বোধ করতে পারিনি। তারপর পুরো শৈশব জুড়ে একটা বই-ই হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছিল, ড্যানিয়েল ডিফোর “রবিনসন ক্রুসো”। আহা কী এক বই ছিল!
তারপর কৈশোরে কীভাবে যেন হেনরি রাইডার হ্যাগার্ডের দেখা পেয়ে গেলাম, আর পিছু হটতে হয়নি। বছরকে বছর মুগ্ধতায় কেটে গেছে। যদিও সাথে সেবা’র আরো অনেক অ্যাডভেঞ্চার বই ছিল।
কিন্তু যৌবনে? সে এক দীর্ঘশ্বাসের সময়। নানা লেখকের নানা ধরনের নানা বই। কিন্তু শৈশব-কৈশোরের সেই অ্যাডভেঞ্চার কই? তারপর কীভাবে যেন হাতে জেমস রলিন্সের “আমাজনিয়া” পেয়ে গেলাম। বাপরে, সে কী অ্যাডভেঞ্চার! অ্যানাকুন্ডা মুভি কোন ছাড়! বলতে দ্বিধা নেই যে, “আমাজনিয়া” একুশ শতকের প্রথম দশকে লেখা অন্যতম সেরা অ্যাডভেঞ্চার বই।
যাইহোক, ধান ভানতে শিবের গীত শুনিয়ে দিলাম। কথা বলছিলাম “দ্যা মায়ান কন্সপিরেসি” নিয়ে। বইটি আমাজনিয়ার পর আমাজনকে নিয়ে পড়া আমার দ্বিতীয় বই। আবার সেখানে চলে এসেছে ইতিহাসের পাতায় হারিয়ে যাওয়া মায়ান সভ্যতার কথা। যদিও মায়ানদের ব্যাপারে বইটিতে বিস্তারিত কিছু নেই তথাপি মায়ানদের সম্পর্কে একটা প্রাথমিক ধারণা পাওয়া যায়।
অসীম পিয়াস’দার অনুবাদ ভাল ছিল- ঝরঝরে। দাদার জন্য শুভ কামনা।

See also  (All) মাওলানা মুহিউদ্দীন খান pdf download | maulana mohiuddin khan books PDF

আপনাদের অতি আগ্রহের বই তাফসীরে মা’রেফুল কুরআন pdf download | Tafsir Maariful Quran Bangla pdf free download দিয়েছি।

ADR Dider

This is the best site for all types of PDF downloads. We will share Bangla pdf books, Tamil pdf books, Gujarati pdf books, Hindi pdf books, Urdu pdf books, and also English pdf downloads.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
You cannot copy content of this page