Life style: Tips and Tricks

২য় শ্রেণীর গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 2 guide book pdf download

আজকে আমরা আপনাদের কে ২য় শ্রেণীর গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 2 guide book pdf download লিংক দিবো। আশা করি আপনাদের অনেক উপকার হবে।

২য় শ্রেণীর গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 2 guide book pdf download

 ২য় শ্রেণীর ইংরেজি গাইড বই ডাউনলোড pdf | class 2 English note book pdf download 

 ২য় শ্রেণীর বাংলা গাইড বই pdf | class 2 bangla Guide book pdf download

 ২য় শ্রেণির গনিত গাইড বই pdf | class 2 math solution book pdf download

 আমার বাংলা বই ২য় শ্রেণী | my bangla book for class 2 

অনুপ্রেরনার গল্পঃ

জীবনে কিছু কিছু ভুল দ্বিতীয় বার করবে না….
১… তোমার থেকে কাউকে বেশি বিশ্বাস করবে না….???
২…. যে তোমাকে ছেড়ে গেছে তাকে জীবনে দ্বিতীয় বার আসতে দিবে না। তাহলে খুব বাজে ভাবে ঠকে যাবে…???
৩…. যারা কথায় কথায় মিথ্যা বলে এদের সত্যিই আশা করবে না তাহলে ঠকে যাবে….??
৪….. যে তোমাকে ঠকিয়েছে তাকে দ্বিতীয় বার বিশ্বাস করবে না….???
৫…. নিজের থেকে বেশি কারো উপর ভরসা করবে না…??
৬… নিজের ভালো থাকার দায়িত্ব অন্যর উপর ছেড়ে দিবে না। তাহলে কাঁদিয়ে ছেড়ে যাবে….??
৭….. বোকা লোকদের সাথে বন্ধুত্ব করবে না….???
৮…. যারা স্বাথে’র পাগল এদের সাথে বন্ধুত্ব করবে না….???
৯…. যারা ভুল করে ভুল স্বীকার করে না তাদের থেকে সাবধান থাকবে…..???
১০…. যারা নিজেকে বড় মনে করে এদের কখনো পরামর্শ দিতে যাবে না….??
১১… যারা লোভি এদের থেকে দূরে থাকবে কারন এরা মরিচিকার পিছনে ছুটতে থাকে কাছের জিনিস রেখে….???
১২… যারা লোক সমাজে বন্ধুতের ছলে অপমান করে এদের থেকে সাবধান থাকবে….????.

গল্প ২ঃ

অতি আধুনিকা এক আপু আমাকে প্রশ্ন করলেন-
‘একই সঙ্গে একটা হাসপাতালে এবং একটা মসজিদে আগুন লেগেছে। তুমি কোনটার আগুন আগে নেভাতে চাইবে?’
আপুটা আবার কিছু নাস্তিক টাইপ। হুমায়ুন আজাদ স্যারের অন্ধ ভক্ত। নিয়মিত নামাজ পড়ি শুনে আমাকে বিপদে ফেলার জন্যই এই প্রশ্ন করা।
আমি বললাম,’পঁচিশ বছরের জীবনে অনেক আগুন লাগার কথা শুনেছি। কিন্তু একই সঙ্গে এমন দুইটা জায়গায় আগুন লাগতে শুনি নি। তবু যদি কখনো লেগে যায়, আমি হাসপাতালের আগুনটাই আগে নেভানোর চেষ্টা করব।’
‘কেন? মসজিদ আগে নয় কেন?’
‘কারণ মসজিদে যারা থাকেন তারা সকলেই মোটামুটি সুস্থ। ইচ্ছে করলেই পালাতে পারবেন। কিংবা সকলে মিলে আগুন নেভানোর চেষ্টা করতে পারবেন। কিন্তু হাসপাতালে সবাই অসুস্থ। শিশু আছে, প্রসূতি মা আছেন। অনেকেরই চলন ক্ষমতা নেই। ওদের সেভ করাটা বেশি জরুরি।’
আপু ঠোঁট বাকিয়ে তেড়ছা হাসির সহিত বললেন,’দূর মিয়া।
তুমি তাইলে পাক্কা মুসলমান না।’
আমি নরম গলায় উত্তর দিলাম, ‘পাক্কা মুসলমান কিনা জানি না। কিন্তু হাসপাতালের আগুনটা যে আগে নিভানো দরকার- এই শিক্ষা আমি মসজিদ থেকেই পেয়েছি।’
~ মুহম্মদ নিজাম। বাংলাভূমি

See also  Panjeree guide for class 8 pdf free download | পাঞ্জেরী গাইড class 8 pdf download

গল ৩ঃ

আমি বিয়ে করি ২০০১ সালে।
আমার মায়ের খুব ইচ্ছা, আর্থিক অবস্থা যেমনই হোক, অসম্ভব একজন রুপবতী মেয়েকে তার ছেলের জন্য বউ করে আনবেন। আমার মাও বেশ সুন্দরী ছিলেন। মা পৈত্রিক সূত্রে সুন্দরী। আমার নানীও বেশ রুপবতী ছিলেন। মায়ের মুখে শুনেছি, আমার নানীকে দেখে নানাভাই পাগল হয়ে গিয়েছিলেন এবং প্রভাব প্রতিপত্তি খাটিয়ে অনেকটা জোর করে বিয়ে করেছিলেন!
আমার মা যখন আমার বউ পছন্দ করলেন, আমি প্রচন্ড রকম বেঁকে বসলাম। আমার শ্বশুর ছিলেন পুলিশ অফিসার। আমি পুলিশের সাথে আত্বীয়তা করতে চাইলাম না।কেননা আমি শুনেছিলাম,পুলিশরা কখনোই ভালো হয় না, এরা ঘুষখোর, দূর্নীতিবাজ হয়! অসৎ হয়!!
মায়ের জোরাজোরিতে একদিন শুধুমাত্র মাকে খুশি করার জন্য মেয়ে দেখতে গেলাম। আগেই ডিসিশন নিয়ে রেখেছিলাম, মেয়ে যতোই সুন্দরী হউক, বাসায় এসে বলবো,মেয়ে পছন্দ হয় নাই!
একদিন ছোটবোন আর ওর স্বামীকে নিয়ে মেয়ে দেখতে গেলাম। মধ্যবিত্ত পরিবার, তারপরও যথেষ্ট আপ্যায়ন করলো। মেয়ে দেখানোর সময় অবাক হয়ে লক্ষ্য করলাম, সাথে যেসব মেয়ে এসেছে,সবাই হিজাব পরা। এমনকি ছোট বাচ্চারা সহ! পরে কথায় কথায় জানলাম, আমার শ্বশুর একজন পরহেজগার মানুষ। পুলিশে থেকেও তিনি নিয়মিত নামাজ রোজা করেন।
আমি বুঝলাম,পুলিশ সম্পর্কে আমার ধারনা ভুল ছিল। ওখানে চাকরি করলেই সবাই ঘুষখোর, দূর্নীতিবাজ হয় না।সততা এবং অসততা, দুটোই পারিবারিক শিক্ষা।
মেয়ে দেখে আমার পছন্দ হয়ে গেল। পণ করে গিয়েছিলাম, এই মেয়ে যতোই সুন্দরী হউক,এখানে আমি রাজি হবো না। কিন্তু সবার আগে আমিই রাজি হয়ে বসে আছি!
ছোটবোন বললো,ভাইয়া,মেয়ে পছন্দ হয়েছে?
আমি বললাম, তোর পছন্দ হয় নাই?
হয়েছে, কিন্ত ভাইয়া,তুই তো পুলিশের মেয়ে পছন্দ করবি না, মাকে বলি বাদ দিয়ে দিতে!
প্রচন্ড একটা ধমক দিয়ে বললাম,এই তোদের একটা সমস্যা। সবকিছুতেই জাজমেন্ট দিয়ে বসিস? কেন,পুলিশ কী মানুষ না? সব পুলিশ কী খারাপ হয়?
বোন এবং তার স্বামী আমার দিকে অদ্ভুত দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইলো!
মা কথা দিয়েছিলেন, বউকে স্বর্ণ দিয়ে মুড়িয়ে আনবেন।
আমি তখন সবেমাত্র একটা ব্যবসা দাঁড় করানোর চেষ্টা করছি। বিয়েতে তেমন খরচাপাতির বিপক্ষে আমি।ছোটখাটো আয়োজন করতে চাইলাম। মা আমাকে না জানিয়ে বিশাল আয়োজন করে ফেললেন!
আমাদের সংসারে মায়ের কথাই শেষ কথা। মহা ধুমধাম করে একদিন বিয়েটা সেরে ফেললাম।
বিয়ের কয়েকদিন পর একদিন মা আমাকে ডেকে আফসোস করে বললেন, বউকে সব গয়না বানিয়ে দিয়েছি,শুধু মাথার তাজটা দিতে পারি নাই। আমি তোর শ্বশুরকে কথা দিয়েছিলাম,বউমাকে তাজ পরিয়ে আনবো।
আমি বললাম, মা, বিয়ের দিন তো বউয়ের মাথায় তাজ দেখেছি!
ওটা আসমার বিয়ের তাজ। তোর ব্যবসাটা দাঁড়িয়ে গেলে বউমাকে একটা তাজ বানিয়ে দিস তো, বাবা।
বলাবাহুল্য, আসমা আমার ছোটবোন।
আমি বললাম,আচ্ছা মা, বানিয়ে দেবো।
বিষয়টা আমি ভুলেই গিয়েছিলাম। মাও আর এই বিষয়টা নিয়ে কিছু বলেননি। বউও না।
এর তিন বছর পর আমরা পরিবারের সবাই একটা পারিবারিক বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছি। আমার ছোটবোন মাথায় তাজ পরেছে।আমি লক্ষ্য করলাম, আমার বউ বারবার তাজের দিকে আড়চোখে তাকাচ্ছে। মাও বিষয়টা খেয়াল করলেন, তবে কোন মন্তব্য করলেন না।
আমি তখনও ব্যবসাটা ঠিকঠাক দাঁড় করাতে পারি নাই, আপ্রান চেষ্টা করে যাচ্ছি, এটা আমার মায়ের মাথায় ছিল।
কিন্তু বিষয়টা আমার কলিজায় গিয়ে লাগলো।
একদিন হঠাৎ মাকে ডাক্তারের কথা বলে ল্যাব এইড হাসপাতালে নিয়ে গেলাম, ওখান থেকে বসুন্ধরা সিটি মার্কেটে। মা অবাক হয়ে বললেন, এখানে নিয়ে এলি কেন?
আমি বললাম, তুমি ওয়াদা করেছিলে, তোমার বউমাকে তাজ বানিয়ে দিবে,দাওনি। তোমার ওয়াদা রক্ষা করা উচিত না?
মা আমতা আমতা করে বললেন, ব্যবসাটা গুছিয়ে নে,তারপর না হয়,,,
মা, এসব চিন্তা করলে আর কখনোই তাজ কেনা হবে না। তোমার বউমা তাজ পরবে কখন? তোমার মতো বুড়ি হয়ে গেলে?
ওয়াদা রক্ষা হচ্ছে বলে মা অসম্ভব খুশি হলেন। তিনি ধার্মিক মানুষ ছিলেন। সারাদিন এই দোকান সেই দোকান ঘুরে অসম্ভব সুন্দর একটা তাজ পছন্দ করলেন। আমি যে বাজেট কল্পনা করেছিলাম, দাম তারচেয়ে বহুগুণ বেশি।
আমি বিসমিল্লাহ বলে কিনে ফেললাম।
মা বাসায় এসে নিজহাতে তার বউমাকে তাজ পরিয়ে দিয়েছিলেন। বউ আনন্দে কেঁদে ফেলেছিলো। তাকে এতো খুশি হতে আর সারা জীবনেও দেখি নাই।
সেদিনই বউ আমাকে প্রথম বলেছিল, ছোটবেলা থেকেই তার তাজ পরার অনেক শখ। সে ভেবেছিল, এই শখ কোনদিনই পূরন হবে না!
অনেক দাম দিয়ে কেনা সেই শখের তাজ বোধহয় তিন চারবারের বেশি পরে নাই। তারপরও মেয়েদের শখ বলে কথা!
এর দশ বছর পর ব্যবসা যখন মোটামোটি দাঁড়িয়ে গেছে,আমার অতি ঘনিষ্ঠ একজন বন্ধু আমার সাথে বেঈমানি করে বসলো। সে আমার ব্যবসায়িক পার্টনার ছিল। বেশকিছু টাকা মেরে দিয়ে ব্যবসায় লালবাতি ধরিয়ে দিল।আমি একা একা দুইবছর ব্যবসা টেনে নিতে গিয়ে আরও লসের পাল্লায় পরলাম। কেউ আমাকে সাহায্য করতে এগিয়ে এলো না!
আমি একটা জমি বিক্রি করে আবার ব্যবসা দাঁড় করালাম। ব্যবসা যখন দাঁড়িয়ে যাচ্ছে, পরিবেশের দোহাই দিয়ে সরকার আমাদের পুরো ব্যবসাই বন্ধ করে দিলো!
এইবার আমার অবস্থা কাহিল হয়ে গেলো। আমি চারিদিক অন্ধকার দেখতে শুরু করলাম। নতুন ব্যবসা শুরু করার মতো আর্থিক অবস্থা তখন আমার নাই।
এই অবস্থায় আমার পরহেজগার মা একদিন স্ট্রোক করলেন এবং এক সপ্তাহের মাথায় আমাদেরকে ছেড়ে চলে গেলেন!
মা চলে যাওয়ার পর আমি চোখে সর্ষেফুল দেখতে শুরু করলাম। অনেক ধনী আত্বীয় থাকার পরও কেউ আমার পাশে এসে দাঁড়ালো না।
একদিন হঠাৎ করে বেশ কিছু টাকা আমার হাতে ধরিয়ে দিয়ে বউ বললো, নতুন করে শুরু কর।পাশে আছি!
আমি বেশ অবাক হলাম, সে এতো টাকা পেল কই?
চাপাচাপি করার পর জানালো,সে তার বাবার মাধ্যমে সমস্ত গয়না বিক্রি করে দিয়েছে, তার এক আত্বীয়ের স্বর্নের দোকান আছে। তার বাবার কাছ থেকেও বেশ কিছু টাকা ধার হিসেবে নিয়েছে।
আমি দোকানে গিয়ে তার গয়না ফেরত আনতে চাইলাম, সে রাজি হলো না। বউ আমার হাত ধরে বললো,তোমার যখন অনেক টাকা হবে,আবার নতুন করে বানিয়ে দিও!
আমি আবার একটা নতুন ব্যবসা দাঁড় করালাম। আলহামদুলিল্লাহ, ভালো আছি।
যদি সেদিন বউ পাশে এসে না দাঁড়াতো,আমি অথৈজলে ভেসে যেতাম।
একদিন আলমারি খুলে দেখি, গয়নার বাক্সে শুধু তাজটা পরে আছে। আর সব খালি!
বউ বললো,আমার শ্বাশুড়ি আমাকে অনেক পছন্দ করে এই তাজটা কিনে দিয়েছেন, এটা আমি নষ্ট করবো না। এটা আমি স্মৃতি হিসেবে আমার মেয়েকে দিয়ে যাবো!
আমার চোখে পানি এসে গেলো।
এখন আর সে স্বর্নের গয়নার প্রতি আগ্রহী নয়। আমি কিনে দিতে চাইলেও সে রাজি হয় না।
আমার মাঝে মাঝে মনে হয়,আমরা যতোখানি বউকে অবহেলা করি,ঠিক ততোখানি অবহেলাই ফেরত পাই।কিন্ত বউকে যতোখানি ভালবাসা দেই, তার দশ গুন ফেরত পাই!

See also  Panjeree guide for class 7 pdf free download | পাঞ্জেরী গাইড class 7 pdf download

আজকে আমরা আপনাদের কে ২য় শ্রেণীর গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 2 guide book pdf download লিংক দিয়েছি। আশা করি আপনাদের অনেক অনেক উপকার হয়েছে।

ADR Dider

This is the best site for all types of PDF downloads. We will share Bangla pdf books, Tamil pdf books, Gujarati pdf books, Hindi pdf books, Urdu pdf books, and also English pdf downloads.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
You cannot copy content of this page