পাঞ্জেরী লেকচার অনুপম গাইড PDF Downloadসকল শ্রেণীর লেকচার গাইড PDF Download

নবম দশম শ্রেণীর ইংরেজি গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 9-10 English Guide PDF Download

আজকে আমরা আপনাদের কে নবম দশম শ্রেণীর ইংরেজি গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 9-10 English Guide PDF Download লিংক দিবো।

বইঃ নবম দশম শ্রেণীর ইংরেজি গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 9-10 English Guide PDF Download

টাইপঃ সমাধান

সাইজঃ ২৩এম্বি

বইঃ সানজাক-ই-ওসমান
লেখকঃ প্রিন্স মুহাম্মদ সজল
মুদ্রিত মূল্যঃ হার্ডকভার ৫০০, পেপারব্যাক ৪৫০।
গার্ডিয়ান প্রকাশনী
“কিয়ামত ততদিন পর্যন্ত সংঘটিত হবে না যত দিন না লাল মুখওয়ালা, ছোট ছোট তির্যক চোখ ও চ্যাপ্টা নাক বিশিষ্ট তাতারেরা তোমাদের উপর চড়াও হবে।তারা পূর্বদিক থেকে আসবে এবং পশম লাগানো চামড়ার জুতা পরবে, তাদের মুখ হবে ঢালের মতো প্রশস্ত। তারা তোমাদের এমন ভাবে আছন্ন করে ফেলবে যেমন করে পঙ্গপালের ঝাক আকাশকে ঢেকে দেয়”
সহীহ বুখারীঃ ২৭৭০
রাসূলের এই হাদীসটি সত্য হয় ওনার মৃত্যুর আরো সাড়ে পাঁচশ বছর পরে।
পৃথীবিতে কেয়ামতের আগে যেন নেমে আসে যেন আরেক কেয়ামত।

ত্রয়োদশ শতাব্দীর শুরুতে মোঙ্গলিয়ান স্তেপ থেকে উঠে আসে এক ঝড়, এই ঝড়ের নাম মোঙ্গল ঝড়, আর এটার নেতৃত্বে ছিলেন নিজেকে ঈশ্বরের পক্ষ থেকে আযাব দাবী করা চেঙ্গিস খান।
মাত্র ২০ বছরের মধ্যে নরকে পরিনত হলো পৃথীবি, বদলে গেল পৃথীবির মানচিত্র।
চীনের জি জিয়া,জিন থেকে শুরু করে তুর্কিস্তান, মার্ভ, তুস,খোরাসান, ককেশাস, রাশিয়া, হিন্দুস্তান কেউ ই রক্ষা পায় নি এই ঝড়ের কবল থেকে।

এমন ই এক ঝড় যা যতদূর আগায় পিছনে ফেলে যায় ধ্বংস আর লাশের স্তুপ, কোন রাজ্য জয় করলে সেখানের ঘর-বাড়ি দোকান-লুট করা হয় তারপর সেখানের বাসিন্দদের নিরাপত্তার কথা বলো নিরস্ত্র করে খোলা জায়গায় দাড় করায় তার পর শুরু করে হত্যা কান্ড, কখনো কখনো সৈন্যপ্রতি হত্যার সংখ্যা দাড়ায় ৩০০-৪০০ জন।
এর মধ্যে আবার তাদের নিয়ে ছড়িয়ে পড়ে একটা গুজব, যা তাদের যুদ্ধ জয়ে ভূমিকা রাখে, তা হলো ইয়াজুজ-মাজুজ ভীতি।
ইসলামে যেহেতু বলা আছে কেয়ামতের আগে পৃথিবীতে ইয়াজুজ মাজুজ এর আগমন ঘটবে।

তাদের নৃশংসতা দেখে লোকে তাদের ইয়াজুজ মাজুজ ভাবতে শুরু করে
চেঙ্গিস খান মারা গেলে ও ঝড় থামার কোন লক্ষন ই ছিলো না, তার দেখানো পথ ধরেই সমান তালে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে যায় তার বংশধরেরা,
তার ই এক বংশধর হালাকু খানের হাতে ধ্বংস হয় আরব্য রজনীর বাগদাদ
তৎকালীন মুসলিম জাহানের কেন্দ্রবিন্দু, জ্ঞান-বিজ্ঞানের রাজধানী বাগদাদ।
বলা হয়ে থাকে তখনকার পৃথিবীর দশ বইয়ের নয়টির ই কপি ছিলো বাগদাদের লাইব্রেরিতে।
বাগদাদ পতনের পর শুধু মুসলিম জাহান না সমগ্র বিশ্ব ই বড়সড় ক্ষতির সম্মুখীন হয়।
আবার ওদিকে চেঙ্গিস খানের বংশধরদের অনেকেই চলে আসে ইসলামের ছায়াতলে,
তাদের একজনের নাম বারকি খান।

See also  ৭ম শ্রেণীর বাংলা গাইড pdf download | class 7 bangla guide pdf download

বাগদাদ পতনের কথা তার কাছে পৌছায় ছয় মাস পর, শুনে সে ক্ষোভে ফেটে পড়ে।
এবং প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য দৃঢ় প্রতিজ্ঞা বদ্ধ হয়।শুরু হয় মোঙ্গলদের মাঝে গৃহযুদ্ধ।
ওদিকে বাগদাদ এর পর তারা হাত বাড়ায় মিসরের দিকে।
মিসরে তখন মামলুকদের রাজত্ব, মামলুকরা সাধারণত দাসের জাত।তাদের সুলতান ও উঠে আসে দাস থেকেই।
এই মামলুকরা ই আইন-জালুতের যুদ্ধে মোঙ্গলদের ট্যাকটিক্স ব্যবহার করে তাদের ই হারিয়ে দেয়।
যে দুর্দান্ত দাপট নিয়ে মোঙ্গলরা শুরু করেছিল। শক্তি সামর্থ আর দানবীয় নিষ্ঠুরতা নিয়ে যে কিংবদন্তীর জন্ম হয়েছিল তা বড় সড় ধাক্কা খায় আইন-জালুতের যুদ্ধে সাইফউদ্দিন কুতুজের হাতে কিতবুকার পরাজয়ে।এই যুদ্ধে আরো একজনের কথা না বললেই নয় তিনি হলেন সুলতান বাইবার্স যাকে দ্য প্যান্থার বলে ও ডাকা হয়।

বাগদাদ পতনের দুবছরের মাথায় মামলুকরাি আবার বাগদাদকে গড়ে তুলতে এগিয়ে আসে।

মোঙ্গলদের হাত থেকে কোন মতে প্রান বাচিয়ে ইরান-তুর্কিস্তান থেকে আনাতেলিয়র দিকে রওয়ানা হয় কিছু মানুষ, তাদের মধ্যে একজনের নাম গাজী আরতুরুল বে ।
আনাতেলিয়ায় পাহাড়ের উপর থেকে দেখেন নিচে যুদ্ধ হচ্ছে, কার কার মধ্যে যুদ্ধ হচ্ছে তিনি তার কিছুই জানেন না।তিনি সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি ও যুদ্ধে অংশগ্রহণ করবেন।দুর্বল দলের পক্ষ থেকে, তিনি যখন দেখলেন একটা দল অপর দলকে ঘিরে আসছে তখন তিনি তার লোকদের নিয়ে ঝাপিয়ে পড়লেন সবল দলের উপর।
তার অপ্রত্যাশিত আক্রমনে যুদ্ধের মোড় ঘুরে গেল এবং দুর্বল দলটি জয় লাভ করলো।
যুদ্ধটি ছিলো সেলজুক আর মোঙ্গলদের পক্ষে এবং তার সাহায্যর কারনে সেলজুকরা যুদ্ধে জয় লাভ করে।
এবং তারা খুশি হয়ে আরতুরুল বে কে আনাতেলিয়ার সবচেয়ে ছোট বেইলিক দান করেন।

বাগদাদের দেয়াল ভেঙ্গে যেবার হালাকু খানের সৈন্যরা ঢুকে পড়ছিলো সেই বছরের শীতেই আনাতেলিয়ার উত্তর-পশ্চিমে সেগুত নামের ছোট একটা শহরে কায়ি গোত্রের বে আরতুরুল গাজীর ঘরে একটা ফুটফুটে শিশুর জন্ম হয়।
বাচ্চাটার নাম ওসমান, ওসমান মানে হাড় গুড়িয়ে দেওয়া পলোয়ান।সেই ওসমান যার নামেই এই বইয়ের নামকরন।
ধীরে ধীরে ওসমান বড় হতে লাগলো সাথে আরতুরুল বে এর ছোট বেইলিক টাও।
একদিন ওসমান তার বাবার সাথে তার বাবার আলেম-দরবেশ বন্ধু এদেব আলীর বাড়ি বেড়াতে যান।
তিনি সেখানে রাতে থেকে গেলেন।
ভোরের কাছাকাছি সময়ে তিনি এক অদ্ভুত স্বপ্ন দেখলেন।

তিনি দেখলেন শায়খ এদেব আলীর বুক থেকে একটা চাঁদ উঠলো, সেই চাঁদ এসে ঠাই নিলো ওসমানের বুকে।তারপর তার নাভি ঢেকে গজিয়ে উঠলো এক বিশাল গাছ।
গাছটি সুন্দর সবুজ ডালপালায় ভরে উঠলো, সময়ের সাথে গাছটি বড় হতে হতে পেরিয়ে যেতে লাগলো চারটি পর্বতমাল; বলকান, আলবুর্জ,ককেশাস আর এটলাস।
গাছের শেকড় থেকে বইতে লাগলো চার চারটি নদী, দানিয়ুব, ইউফ্রেতিস, তাইগ্রীস আর নীল।গাছের পাতাগুলো রূপ নিলো তরবারির ফলায়।
সে বাতাসে একেকটি পাতা একেকটি তরবারি হয়ে উড়ে যেতে লাগলো কনস্ট্যান্টিনোপল এ।
দুই মহাদেশ আর দুই সমুদ্রের দেশ।
তারপর কনস্টান্টিনোপল পরিনত হলো আংটির কেন্দ্রে সেই আংটি ওসমান যখন হাতে পরলেন তখন তার ঘুম ভেঙ্গে গেল।
কি ছিলো সেই স্বপ্নের ব্যাখা?

See also  বাংলা ২য় পত্র গাইড PDF Download | HSC Bangla 2nd paper book pdf download

কিভাবে ওসমান ও তার উত্তরসূরি ওরহান, মুরাদ, বায়েজিদ, মুহাম্মদ, দ্বিতীয় মুরাদ আর তার বেয়াড়া ছেলে দ্বিতীয় মোহাম্মদ তার দেখা স্বপ্নের বাস্তব রূপ দিলেন?
কিভাবে গড়ে তুললেন বিশাল এক সালতানাত, আবার ভেঙ্গে যাওয়া সালতানাত নিয়ে নিয়ে কিভাবে ঘুরে দাড়ালেন।
কিভাবে রাসূল (সঃ) এর ভবিষ্যতবাণী সত্য হলো, “নিশ্চয় কনস্টান্টিনোপল মুসমানরা জয় করবে, কত সৌভাগ্যবান সেই যুদ্ধের সৈন্যরা কত সৌভাগ্যবান তাদের নেতা”
অবশ্য কনস্টান্টিনোপল জয়ের জন্য অনেক মূল্য দিতে হয়েছে সেই ইয়াজিদ থেকে শুরু করে আব্বাসিয়া খলিফা সুলেমান ব্যর্থ হওয়ার পরে কিভাবে অটোমানরা জয় করলো?
জানতে হলো পড়ে ফেলুন সানজাক-ই-ওসমান।
এটা কোন নিয়মিত ইতিহাসের বই নয়।এটা একই সাথে ইতিহাস ফিকশন আর থ্রিলার।আজকের পৃথীবি কিভাবে নির্মান হলো তা জানতে এই বই আপনাকে সাহায্য করবে, ইনশাআল্লাহ।
“This is the time travel
Start your journey!!

নবম দশম শ্রেণীর ইংরেজি গাইড বই ডাউনলোড PDF Download | Class 9-10 English Guide PDF Download

Click here to download

ADR Dider

This is the best site for all types of PDF downloads. We will share Bangla pdf books, Tamil pdf books, Gujarati pdf books, Hindi pdf books, Urdu pdf books, and also English pdf downloads.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
You cannot copy content of this page